পাইথন কি ? পাইথন প্রোগ্রামিং এর ৫ টি বৈশিষ্ট্য

5/5 - (3 votes)

কম্পিউটার ও মোবাইল ফোনে চলা সমস্ত সফটওয়্যার ও এপ্লিকেশন কোনো না কোনো প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ দ্বারা বানানো হয়ে থাকে  , বর্তমান সময়ে আপনি অনেক গুলি প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ পাবেন যেমন C , C ++ , জাভা ইত্যাদি । এইসব কম্পিউটার এর ল্যাঙ্গুয়েজ হয়ে থাকে , যা মানুষ অর্থাৎ Human দ্বারা লেখা ও বোঝা হয়ে থাকে । প্রতিটা কম্পিউটার ল্যাঙ্গুয়েজের আলাদা আলাদা বৈশিষ্ট্য থাকে যা এই কম্পিউটার ল্যাঙ্গুয়েজ গুলোকে একে ওপরের থেকে আলাদা করে থাকে । 

সময়ের সাথে সাথে যত টেকনোলজি উন্নতি ঘটেছে ততই এই প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ সেক্টরে উন্নতি হয়েছে , যা একজন কম্পিউটার ইউসার কে নতুন নতুন ফিচার প্রদান করে । এরপর আপনারা সবাই জানেন যে সব জিনিসের মধ্যে সবচেয়ে সেরা একটা জিনিস থাকে ঠিক তেমন প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজের ক্ষেত্রেও , এমনই একটা ল্যাঙ্গুয়েজ হলো পাইথন প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজবিশ্বের সেরা ১০ টি প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজের মধ্যে সবচেয়ে উপর সারিতে এই প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজের নাম রয়েছে , আশা করি এর থেকে আপনি আন্দাজ করতে পারছেন যে এই পাইথন প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ কতটা জনপ্রিয় ।

পাইথন কি

পাইথন হল একটি Opensource High Level প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ , যার ব্যবহার করা  অন্যান্য ল্যাঙ্গুয়েজের থেকে অনেকটাই সহজ , এছাড়া এই প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ কে শক্তিশালী ল্যাঙ্গুয়েজ হিসেবে মানা হয়ে থাকে । পাইথন হল একটি সুন্দর প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ যার সাহায্যে খুব দ্রুত গতিতে যে কোনো এপ্লিকেশন কে তৈরী করা যেতে পারে ।

পাইথন প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ  GUI এপ্লিকেশন , ওয়েবসাইট ও ওয়েব এপ্লিকেশন তৈরী করতে ব্যবহার করা হয় । পাইথন ল্যাঙ্গুয়েজ C , C++ এর মতো একটি প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ  , কিন্তু এটি অন্য সব ল্যাঙ্গুয়েজের থেকে অনেক সহজ । একজন ডেভেলপার এই পাইথন ল্যাঙ্গুয়েজে কে পড়ে ট্রান্সলেট ও করতে পারে , যা অন্যান্য ল্যাঙ্গুয়েজের তুলনায় অনেক সহজ হয়ে থাকে ।

 

ক্লাউড কম্পিউটিং কী ? সম্পূর্ণ তথ্য বাংলায় 

 

পাইথন প্রোগ্রামিং Dynamic Tag SystemAutomatic Memory Management এর সুবিধা প্রদান করে থাকে  , ফলে প্রোগ্রামের maintance ও developing খরচ অনেক কম হয় এবং পাইথন ল্যাঙ্গুয়েজে কাজ করা টিমের সদস্যরা একে ওপরের সাহায্যে অর্থাৎ একসাথে কাজ করার সুযোগ পায় ।  

শক্তিশালী অর্থাৎ powerful প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ হওয়ার দরুন পাইথনের ব্যবহার বড়ো বড়ো কোম্পানিতেও করা হচ্ছে , যেমন Google , facebook , Youtube , Quora ,Wikipedia , Instagram , Pinterest ইত্যাদি । পাইথন ল্যাঙ্গুয়েজ ModulePackages সাপোর্ট করে অর্থাৎ এই ল্যাঙ্গুয়েজে যে প্রোগ্র্যাম লেখা হয়ে থাকে সেটা Module Cell এ লেখা হয়ে থাকে যা আলাদা আলাদা ধরনের কাজ করার জন্য বানানো হয়ে থাকে । এই module এর ব্যবহার অন্য project এর কাজেও ব্যবহার করা যেতে পারে এবং  Importexport খুব সহজে হয়ে যায় ।

 

   • কীভাবে একজন সফল ইউটিউবার হওয়া যায় ? সেরা ১৫ টি টিপস

 

১. পাইথনের ইতিহাস

পাইথন কি সেটা তো আপনারা জানলেন কিন্তু কোনো জিনিসের ইতিহাস না জানলে সেটার বিষয়ে বিভিন্ন তথ্য অজানা থেকে যায় । তাহলে চলুন পাইথন প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজের ইতিহাস জেনে নেওয়া যাক ।

১৯৮০ সালে Netherland দেশের Guido Van Rossum পাইথনের আবিষ্কার করেছিলেন , ১৯৮০ সালের ঠিক ১০ বছর পর অর্থাৎ ১৯৯১ সালে পাইথন ল্যাঙ্গুয়েজ কে launch করা হয়েছিল । এরপর ১৯৯৪ সালের জানুয়ারী মাসে পাইথনের প্রথম সংস্করণ Python 1.0  launch করা হয়েছিল , এর ৬ বছর পর অর্থাৎ ২০০০ সালের অক্টোবর মাসে পাইথনের দ্বিতীয় সংস্করণ Python 2.0 launch করা হয়েছিল । এরপর অনেক বছর পর পাইথনের তৃতীয় সংস্করণ Python 3.0 ২০০৮ সালের ডিসেম্বর মাসে আসে , আর এরপর পাইথনের নতুন সংস্করণ Python 3.6.1 ২০১৭ সালের মার্চ মাসে Release করা হয় ।

 

ওয়েব ডিজাইন কি ? কিভাবে একজন ওয়েব ডিজাইনার হওয়া যায় ?

 

এই ল্যাঙ্গুয়েজ কে এমন ভাবে তৈরী করা হয়েছে যে এর মধ্যে লেখা কোড গুলি খুব সহজে পড়া এবং বোঝা যায় , এছাড়া এই ল্যাঙ্গুয়েজ শেখার জন্য কোনো টাকা পয়সা খরচ করতে হয় না এবং এর জন্য কোনো লাইসেন্সের প্রয়োজন নেই , কারণ এটি একটি General Public License (GPL) এ উপলব্ধ একটি ফ্রি সফটওয়্যার , যেটা একজন ইউসার কে সফটওয়্যার চালানো এবং পড়ার সুবিধা প্রদান করে থাকে । এবার হয়তো আপনাদের মনে কিছু প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে , যে এই প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজের নাম পাইথন কেন রাখা হলো ? কারণ পাইথন তো একধরনের সাপের প্রজাতি , তো এর সাথে একটি প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজের কি সম্পর্ক থাকতে পারে ? 

 

তথ্য প্রযুক্তি কি (Information Technology) সম্পূর্ণ তথ্য বাংলায় 

 

আসলে পাইথনের নামকরণ একটি কমেডি শো এর নামে করা হয়েছিল , যেটা ১৯৭০ সালে BBC Comedy Tv তে অনুষ্ঠিত Monty Python’s Flying Circus নামে বেশ জনপ্রিয় Tv Series ছিল Guido Van Rossum এর থেকে প্রভাবিত হয়ে নিজের তৈরী করা প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজের নাম পাইথন রেখে ছিল ।

২. কেন পাইথন প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজের ব্যবহার করা হয় ?

পাইথন একটি বস্তু ভিত্তিক বা Object Oriented প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ , যেটার ব্যবহার আমরা সফটওয়্যার তৈরিতে করে থাকি । এটি একটি Interpreter ল্যাঙ্গুয়েজ ও বটে অর্থাৎ এর মধ্যে লেখা প্রোগ্রাম এর কোড গুলিকে Run করার জন্য Computer Readable Format এ পরিবর্তন করে Compile করার প্রয়োজন পরে না । কিন্তু অন্যান্য প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজে লেখা কোড গুলিকে Run করার আগে Source Code গুলিকে Object কোডে conversion করতে হয় ।

Interpreter এর সাহায্যে পাইথন কোড গুলিকে প্রায় সব কম্পিউটারে খুব সহজে Run করা যায় । পাইথন সমস্ত অপারেটিং সিস্টেম ও প্লাটফর্মে Run করতে পারে , যেমন Windows , MacOS , Linux ইত্যাদি । সবচেয়ে বেশি ব্যবহার হওয়া প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ হলো পাইথন , পাইথনের ব্যবহার বেশ কিছু কাজে ব্যবহার করা হয় , যেমন System Software , Web Application , Game Development , App Development , Websites Creation , Computer Graphics , Server Side Programs ইত্যাদি

 

 • অপারেটিং সিস্টেম কি ? অপারেটিং সিস্টেম এর কাজ কি ? 

 

এছাড়া আপনারা হয়তো এটা শুনলে অবাক হয়ে যাবেন যে পাইথনের ব্যবহার NASA তেও করা হয়ে থাকে , সাধারণত NASA তে বিভিন্ন Equipments, Space Machine ও স্যাটেলাইট তৈরির কাজে পাইথন প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজের ব্যবহার করা হয় ।

 

 • স্যাটেলাইট কি ? কিভাবে কাজ করে ? সম্পূর্ণ তথ্য 

 

এই পাইথন প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্ট ও ডেটা সায়েন্সও করা হয় , পাইথনের স্ট্যান্ডার্ড লাইব্রেরি অনেক গুলি ইন্টারনেট প্রোটোকল কে সাপোর্ট করে থাকে , যেমন HTML , XML , JSON , IMAP , FTP ইত্যাদি ।

৩. পাইথন প্রোগ্রামিং এর বৈশিষ্ট্য

পাইথন হলো একটি High Level প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ , যেখানে কোড রিড ও maintain করা খুব সহজ এবং এর Source কোড পাওয়া সহজ । এছাড়া এর Source কোড গুলিকে Reuse বা কোনো modification এর জন্য সবসময় Open রাখা হয় , যাতে একজন ইউসার কে গুলিকে ডাউনলোড ও ব্যবহার করতে পারে । আর এই কারণে পাইথন কে Open Source প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ বলা হয়ে থাকে । সব কিছুর মতো পাইথনের এমন কিছু বৈশিষ্ট্য রয়েছে যা অন্যান্য সব ল্যাঙ্গুয়েজে দেখতে পাওয়া যায়না , চলুন তাহলে দেখে নেওয়া যাক সেই বিশেষ বৈশিষ্ট্য গুলি 

৩.১. পাইথন প্রোগ্রামিং ব্যবহার করা সহজ  

পাইথন একটি খুব সহজ ভাষা, এবং এটি ব্যবহার করাও খুব সহজ, তাই এটি কম্পিউটার ল্যাঙ্গুয়েজের মধ্যে সবচেয়ে সহজ ভাষা হিসাবে বিবেচিত হয়। পাইথন এমন একটি প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ যেটি পড়া এবং বোঝা খুব সহজ, আমাদের মধ্যে যাদের প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ সম্পর্কে আগে থেকে কোন জ্ঞান ও অভিজ্ঞতা নেই, তারাও  এই প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ শিখে নিয়ে সহজেই একজন প্রোগ্রামার হতে পারে।

 

ডিজিটাল মার্কেটিং কি ? ডিজিটাল মার্কেটিং কিভাবে শিখব ? সম্পূর্ণ তথ্য

 

৩.২ Interpreted ল্যাঙ্গুয়েজের সুবিধা 

অন্যান্য কোনো প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ যেমন C, C++ এবং Java ইত্যাদি Run করার আগে যেমন আমাদের Compile করতে হয়, পাইথন প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজে Code গুলি Run করার জন্য Compile করতে হয়না । পাইথন কোড গুলি Interpreter দ্বারা   Run করা হয় , পাইথন এক সময়ে প্রোগ্রামের কোড গুলিকে সারিবদ্ধ ভাবে Execute করে থাকে , তাই পাইথন কে Script Language বলা হয়। তবে পাইথন প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ অন্যান্য প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজের তুলনায় একটু Slow হয়ে থাকে ।

৩.৩. Platform Friendly বা সমস্ত প্লাটফর্মে উপলব্ধ  

পাইথন প্রোগ্রামিং Open Source হওয়ার দরুন বেশ কিছু প্লাটফর্মে উপলব্ধ রয়েছে , যেমন লিনাক্স , উইন্ডোস ও Mac OS , পাইথনের কোড গুলি খুব সহজে যে কোনো প্লাটফর্মে Run করতে পারে । তাই আপনি যদি পাইথনের কোড যে কোনো অপারেটিং সিস্টেমে Run করতে চান তাহলে আপনি কোনো সমস্যা ছাড়া এই কোড গুলি Run করতে পারেন , আলাদা আলাদা প্লাটফর্মের জন্য আলাদা কোড লেখার প্রয়োজন হয়না ।

 

সুপার কম্পিউটার কি ? সুপার কম্পিউটার এর ব্যবহার (What is Super Computer) সম্পূর্ণ তথ্য বাংলায় 

 

৩.৪. পাইথন প্রোগ্রামিং একটি Extensible ল্যাঙ্গুয়েজ

পাইথন সম্পূর্ণ Extensible Language হয়ে থাকে অর্থাৎ পাইথনের Source কোডে আপনি যে কোনো প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজের কোড ব্যবহার করতে পারবেন । যদি আপনি চান প্রোগ্রামের কোনো একটা অংশ দ্রুত Execute হোক , তাহলে আপনি সেই অংশ টিকে C কিংবা C ++ লিখতে পারেন , এবং এটি খুব সহজে Integrate করা যায় ।

৩.৫. বড়ো মাপের লাইব্রেরির সুবিধা ( Large Standard Library )

পাইথন প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজে Large Standard লাইব্রেরি রয়েছে , এই লাইব্রেরি অনেক ধরণের কাজের জন্য উপলব্ধ রয়েছে , যেমন Rapid Application Development এর জন্য Module এবং Packages সেটআপ প্রদান করে থাকে , ফলে আমাদের প্রতিটি কাজের জন্য আলাদা করে কোড লেখার প্রয়োজন হয়না , এছাড়া এর মধ্যে Graphical User Interface তৈরী করার জন্য Module , Web Frameworks তৈরী করার জন্য Module , Database থেকে Data আদান প্রদান করার জন্য module , অনেক ধরণের Task Perform করার জন্য লাইব্রেরি তে Module উপলব্ধ রয়েছে ।

একনজরে : আজকের এই পোস্ট থেকে আমরা কি কি জানলাম ?

প্রথমে জানলাম পাইথন কি ?

তারপরে জানলাম পাইথন প্রোগ্রামিং এর ইতিহাস ও ব্যবহার এবং সবশেষে জানলাম পাইথনের সেরা ৫ টি বৈশিষ্ট্য 

» আরও পড়ুন :

ওয়াইফাই কি ? ওয়াইফাই কিভাবে কাজ করে ? (wifi কি)

 

ওয়েব ব্রাউজার কি ? কয়েকটি সেরা ওয়েব ব্রাউজার এর নাম

 

•  ক্রিপ্টোকারেন্সি কি ? cryptocurrency in bengali

আজকের এই পোস্ট থেকে আশা করি পাইথন কি এবং এর সম্বন্ধীয় যাবতীয় তথ্য আপনি জানতে পেরেছেন , এবং  আমাদের বঙ্গজ্ঞান টিমের সবসময় একটাই লক্ষ্য থাকে যে কোনো বিষয়ে আপনাদের সম্পূর্ণ সঠিক ও বিস্তারিত তথ্য দেওয়ার , এই পোস্ট টি যদি আপনাদের ভালো লেগে থাকে তাহলে অতি অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন , আপনাদের একটা কমেন্ট আমাদের টীম অনেকটাই অনুপ্রাণিত হয় এবং আপনাদের জন্য নতুন নতুন তথ্যের উপর পোস্ট নিয়ে আসতে উৎসাহ পায় ।

এই পোস্টে আমরা আপনাদের কাছে যদি ভালো উৎসাহ পাই তাহলে বেসিক থেকে পাইথন প্রোগ্রামিং কিভাবে সহজে শেখা যায় তার উপর পোস্ট নিয়ে আসবো , কারণ আপনাদের মধ্যে অনেকের হয়তো পাইথন কি এটা জানার পর এটা শেখার আগ্রহ তৈরী হয়েছে । তাই আমাদের ব্লগের সাথে যুক্ত থাকুন এবং আমাদের উৎসাহ বাড়াতে থাকুন ।

ধন্যবাদ 

বঙ্গজ্ঞান টীম 

শেয়ার করুন:

নমস্কার , বঙ্গজ্ঞান ওয়েবসাইটে আপনাদের স্বাগত , আপনাদের বিভিন্ন বিষয়ে যেমন ব্যবসা , ক্যারিয়ার , কম্পিউটার জ্ঞান , ইন্টারনেট ইত্যাদির উপর আমরা তথ্য নিয়ে আসি প্রতি সপ্তাহে সোমবার দুপুর ০২.৩০ মিনিটে। আমাদের উদ্দেশ্য আপনাদের সবার কাছে বাংলা ভাষায় সঠিক তথ্য পৌঁছে দেওয়া।

Leave a Comment